মহিষ চুরির মামলায় ইউপি চেয়ারম্যান কারাগারে


প্রকাশের সময় : ডিসেম্বর ১৫, ২০২২, ৯:১৭ অপরাহ্ন / ৭০
মহিষ চুরির মামলায় ইউপি চেয়ারম্যান কারাগারে

কক্সবাজারের মহেশখালীতে মহিষ চুরি মামলায় চকরিয়া উপজেলার শাহারবিল ইউনিয়ন পরিষদের বর্তমান চেয়ারম্যান নবী হোসেন চৌধুরী প্রকাশকে কারাগারে পাঠিয়েছেন আদালত।

বৃহস্পতিবার (১৫ ডিসেম্বর) বিকেলে কক্সবাজার সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক আবুল মনসুর সিদ্দিকী তাকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন।

কক্সবাজার চিফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের প্রশাসনিক কর্মকর্তা শাহজাহান নুরী বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।
নবী হোছাইন চকরিয়ার শাহারবিল এলাকার মৃত হাবিবুর রহমানের ছেলে।

মহেশখালীর কুতুবজোমের তাজিয়াকাটার মৃত দুদু মিয়ার ছেলে এবাদুল হক ২০২১ সালের ৫ জুন নবী হোছাইনকে প্রধান আসামি করে মহেশখালী থানায় মহিষ চুরির মামলা করেন।

মামলা সূত্রে জানা যায়, ২০২১ সালের ৪ জুন রাত ২টার দিকে একদল দুর্বৃত্ত এবাদুল হকের খামার থেকে চারটি মহিষ ইঞ্জিন চালিত বোটে তুলে নদীপথে ওই এলাকা ছাড়েন। পরে চোরচক্র চকরিয়ার চোরারফাড়ি ঘাটে বোট নোঙর করে মহিষগুলো নিয়ে পাড়ায় ঢুকে পড়ে। একপর্যায়ে তারা মহিষগুলো একটি বাড়িতে ঢুকিয়ে ফেলেন।

এবাদুল সব দৃশ্য কৌশলে ভিডিও করেন। পরে স্থানীয় লোকজনকে ভিডিও দেখিয়ে বাড়িটি নবী হোসেনের বলে নিশ্চিত হন। পরে বাকি চোরদের তথ্যও সংগ্রহ করেন।

পরে বোট চালক আবুল হাশেম চুরির ঘটনায় নবী হোসেনের সম্পৃক্ততা স্বীকার করে আদালতে জবানবন্দি দেন। উচ্চ আদালত থেকে আগাম জামিন নেন নবী হোসেন। মেয়াদ শেষ হলে ১৩ ডিসেম্বর নিম্ম আদালতে জামিনের আবেদন করেন তিনি। সব কিছু পর্যালোচনা করে আসামি নবী হোসেনের জামিন নামঞ্জুর করে তাকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন আদালত।