নড়াইলের দিঘলিয়ায় ফেসবুকে মহানবীকে কটুক্তি, আদালতে ১৬৪ ধারায় দোষস্বীকার করে আকাশ সাহার স্বীকারোক্তি মূলক জবানবন্দী।


প্রকাশের সময় : জুলাই ২৭, ২০২২, ১:৫৬ অপরাহ্ন / ১৩৩
নড়াইলের দিঘলিয়ায় ফেসবুকে মহানবীকে কটুক্তি, আদালতে ১৬৪ ধারায় দোষস্বীকার করে আকাশ সাহার স্বীকারোক্তি মূলক জবানবন্দী।
স্টাফ রিপোর্টারঃ নড়াইলে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে (ফেসবুকে) মহানবী হযরত মুহাম্মদ(সা:) কে নিয়ে গত ১৫ জুলাই আপত্তিকর মন্তব্য করে লোহাগড়া উপজেলার নবগঙ্গা ডিগ্রি কলেজের স্মাতকের ছাত্র ও দিঘলিয়া গ্রামের সাহাপাড়ার আশোক সাহার ছেলে আকাশ সাহা।
ধর্ম অবমাননার অভিযোগ এনে পরদিন দিঘলিয়া গ্রামের সালাউদ্দিন কচি বাদী হয়ে লোহাগড়া থানায় একটি মামলা করেন। ওই মামলায় অভিযুক্ত আকাশ সাহাকে খুলনা জেলার ডুমুরিয়া উপজেলার প্রত্যন্ত এলাকা থেকে গ্রেফতার করে পুলিশ।
প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদ শেষে ১৭ জুলাই লোহাগড়া আমলী আদালতের বিচারক সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মো: মোরশেদুল আলম এর আদালতে ৭ দিনের রিমান্ড চেয়ে আবেদন করেন মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই ফিরোজ ইকবল।
আদালত শুনানী শেষে আকাশ সাহার ৩ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন। রিমান্ড শেষে ২০ জুলাই একই আদালতে আকাশ সাহা তার পরিচালনাধীন ফেসবুক আইডি থেকে নিজেই মহানবী হযরত (সা:) কে নিয়ে কটুক্তিমূলক মন্তব্য দিয়েছেন মর্মে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দী দিয়েছেন।
এ ঘটনার জেরে সাহাপাড়ার কয়েকটি বাড়িঘর, দোকান ও মন্দির ভাঙচুর এবং একটি বাড়িতে অগ্নিসংযোগ করে বিক্ষুব্ধ জনতা। এ ঘটনায় পুলিশ বাদী হয়ে লোহাগড়া থানায় অপর একটি মামলা করেন। সে মামলায় ভিডিও ফুটেজের ভিত্তিতে মোট ১০ জনকে আটক করে পুলিশ। মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই মিজানুর রহমান আটককৃতদের ৭ দিনের রিমান্ড চেয়ে আদালতে আবেদন করে।
আদালত প্রত্যেককে তিন দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন। রিমান্ড শেষে আসামীদের জামিনের আবেদন করলে আদালত জামিন নামঞ্জুর করে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেয়।